Website কি? কোডিং না জেনে কিভাবে ফ্রি ওয়েব সাইট তৈরি করার নিয়ম ৫ টি ধাপে

By | ডিসেম্বর 22, 2017

Website তৈরি করা এখন ঘন্টার কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। website কি? এই প্রশ্নের জবাব এখন সকলেরই জানা। বর্তমান ডিজিটাল দুনিয়ায় মানুষ খুব সময় সচেতন। কোন তথ্য জানতে হলে গুগল ছাড়া উপায় দেখেনা।

গুগল সার্চ ইঞ্জিন মুহূর্তে আপনার যেকোন প্রশ্নের উত্তর দিতে সক্ষম। গুগল এই প্রশ্নের উত্তর পায় কোথা থেকে? যেকোন ওয়েবসাইট কে যখন এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন) করা হয় তখন গুগল সেই ওয়েব সাইটের তথ্য সার্চার কে প্রকাশ করে। Website কি, কেন এবং কিভাবে বানাবেন সহজ উপায়ে এবং বিনামুল্যে জানুনঃ

Website কি - কিভাবে তৈরি করবেন

ওয়েব সাইট কি?

ওয়েব সাইট হলো ওয়েব পেইজ, ছবি, অডিও, ভিডিও ও অন্যান্য ডিজিটাল তথ্যের সমন্বয়ে বানানো পোর্টাল যা কোন ওয়েব সার্ভারে থাকে এবং ইন্টারনেট বা ল্যানের মাধ্যমে কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন থেকে ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে দেখা যায়। Website কি জানার পর চলুন জেনে নেই Web site কিভাবে বানাবেন?

ওয়েব সাইট তৈরি করার নিয়ম

বছরব্যাপী কোডিং শিখে ওয়েবসাইট বানানোর প্র্যাকটিস এখন আর কেউ করেনা। মানুষের এতো সময় হয়না। ডিজিটাল দুনিয়ায় মানুষ খুব বেশি সময় সচেতন। Website কি, জানার পর মুল কাজ কিভাবে বানাবেন তা রপ্ত করে নেয়া।

ফ্রি ওয়েব সাইট তৈরি করুন ৫টি ধাপে

শর্টকাট উপায়ে কিভাবে ৫টি ধাপে কম সময়ে ওয়েব সাইট বানাবেন জেনে নিন আজইঃ

পদক্ষেপ ১ঃ সঠিক প্ল্যাটফর্ম নির্বাচন করুন


দ্রুত, মোবাইল বান্ধব এবং কার্যকরী ওয়েবসাইট তৈরি করতে হলে আপনাকে একটি প্ল্যাটফর্ম নির্বাচন করতে হবে।

“Content Management System-CMS” এর অর্থ কি?

CMS বা ওয়েবসাইট বিল্ডিং প্ল্যাটফর্ম হলো এমন একটি মাধ্যম যেখানে আপনি আপনার ডিজিটাল কন্টেন্ট বানাতে এবং পরিবর্তন করতে পারবেন। ডিজিটাল কন্টেন্ট যেমন আপনার ওয়েবসাইট এর আর্টিকেল বা ভিডিও অথবা ছবি। CMS প্ল্যাটফর্মগুলো বানানো মূলত ইউজারের কাজ সহজ করার জন্যে।

বছরব্যাপী HTML এবং CSS কোডিং শিখে ওয়েবসাইট বানানোর দিন শেষ। ডিজিটাল দুনিয়ায় মানুষ খুব বেশি সময় সচেতন। সময় মানে এখন টাকা। এই মুল্যবান সময় খরচ করার আগে ভাবতে হবে। কম সময়ে কার্যকরী এবং বিশ্বমানের একটি ওয়েবসাইট বানানোর জন্য CMS (যেমন ওয়ার্ডপ্রেস) এর কোন বিকল্প নেই।

খুবই কমন কিছু প্রশ্ন থাকে- ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে হাই কোয়ালিটি Website কি বানানো যায়? উত্তর হলো হ্যা, বানানো যায়।

কোন প্রকারের কোডিং এর অভিজ্ঞতা ছাড়া আপনিও একটি সম্পূর্ণ ওয়েব সাইট বানাতে পারবেন। তার জন্যে থাকা লাগবে আপনার কিছুটা শেখার ইচ্ছা। এবং জানতে হবে Website কি, কিভাবে কাজ করে।

WordPress কি

সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানগুলিতে ওয়ার্ডপ্রেস হল সর্বাধিক জনপ্রিয় কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (৫৫%), জুমলা (২০%) এবং ড্রুপাল (১১%)।

এই তিনটি কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম এর মধ্যে ওয়ার্ডপ্রেস সবচেয়ে সহজলভ্য। কারণগুলো হলোঃ

  • আপনার কোডিং জানা লাগবেনা।
  • ওয়েব সাইট ডিজাইন জানা লাগবেনা।
  • কোন ডেভেলপার প্রয়োজন হবেনা।
  • নিজের সাইট নিজেই দেখাশোনা করতে পারবেন সহজেই।
  • একদম জিরো থেকে শুরু করলেও আপনি হতে পারবেন একটি সুন্দর ওয়েবসাইটের মালিক।

পদক্ষেপ ২ঃ একটি DOMAIN ও Web Hosting নিন


আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সেট আপ করতে দুটি জিনিস প্রয়োজনঃ

  • একটি ডোমেন নাম ( আপনার ওয়েবসাইটের নাম )
  • হোস্টিং (একটি সেবা যেখানে আপনার ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট জমা করা থাকে)

ওয়ার্ডপ্রেস প্ল্যাটফর্ম আপনি বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন। কিন্তু ডোমেন এবং হোস্টিং কিনতে হবে আপনাকে। একবছরের জন্যে কিনে নিন আপনার ডোমেন এবং হোস্টিং। হোস্টিং নেয়ার আগে চিন্তা করে নিন। যে প্যাকেজ করবেন সেটা আপনার সাইটের জন্যে পারফেক্ট কিনা ভেবে নিন। আপনার ভবিষ্যত Website কি, ব্যবসা বা ব্লগ প্রতিফলিত করে এমন একটি ডোমেন নাম নির্বাচন করুন।

পদক্ষেপ ৩: আপনার সাইটটি সেট আপ করুন


ডোমেন এবং হোস্টিং কিনে ফেললে আপনি আপনার পথে অনেকখানিই এগিয়ে গেলেন। 

এখন আপনার ওয়েব সাইট আপ করতে হবে। আপনার হোস্টিং একাউন্ট থেকে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস (অথবা জুমলা, ড্রুপাল) ওয়েবসাইট তৈরি করতে, এক ক্লিকে ইন্সটলেশন ব্যবহার করুন:

প্রায় প্রতিটি নির্ভরযোগ্য এবং সুপ্রতিষ্ঠিত হোস্টিং কোম্পানী ওয়ার্ডপ্রেস এর জন্য ১-ক্লিক-ইন্সটলেশানকে সার্ভিস দিয়ে থাকে।

যদি আপনি ভালো কোনও একই হোস্টিং কোম্পানীর সাথে সাইন আপ করেন, তাহলে আপনার অ্যাকাউন্ট নিয়ন্ত্রণ প্যানেলে আপনার “১-ক্লিক-ইনস্টল” খুঁজে পাবেন।

নিচের পদক্ষেপগুলি (প্রায় সমস্ত ওয়েব হোস্টিং কোম্পানিতে একই হয়ে থাকে):

  1. আপনার হোস্টিং অ্যাকাউন্ট এ লগ ইন করুনসি প্যানেল লগইন কিভাবে
  2. আপনার সি প্যানেলে যান (যেমন www. ursite.com/cpanel)
  3. “ওয়ার্ডপ্রেস” আইকনটি খুজে বের করুন। সাধারণত নিচের দিকে থাকে।
  4. “ওয়ার্ডপ্রেস” বোতামটি ক্লিক করুন এবং আপনি আপনার নতুন ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটলেশান সাইটে চলে যাবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটলেশান সি প্যানেল থেকে

  ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করবেন কিভাবে?

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল স্টেপ

সি প্যানেল থেকে ওয়ার্ডপ্রেস বাটনে ক্লিক করার পর উপরের ছবির মতো একটি উইন্ডো পাবেন। তীর চিহ্নিত জায়গায়(Install Now) ক্লিক করুন.

তারপর তিনটি স্থান পুরন করতে হবে যা আপনার সাইটের জন্যে খুব গুরুত্বপূর্ণ।

১। আপনার সাইটের ডোমেইন URL নির্দেশনা দিন। যদি আপনার  SSL Certificate থাকে তবে অবশ্যই HTTPS সিলেক্ট করবেন। নাহলে HTTP সিলেক্ট করুন। তারপর আপনার সাইটে মানুষ কিভাবে লগইন করবে? www দিবে নাকি শুধু ডোমেইন দিয়ে লগইন করা যাবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল স্টেপ ২

২। তারপর আপনার ডোমেইন সিলেক্ট/টাইপ করুন।

৩। ডিরেক্টরি সিলেক্ট করুনঃ এই ধাপে ওয়ার্ডপ্রেস এ By default ‘wp’ দেয়া থাকে। ‘wp’ ওয়ার্ডপ্রেস এর short form. এর মানে আপনার Root URL এর শেষে wp কথাটা থাকবে।

আপনার ডোমেইন যদি হয় www.money-bd.com তাহলে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল হবে www.money-bd.com/wp এ। ৩ নম্বর পয়েন্ট জায়গাটা ফাকা রাখা ভালো। ‘wp’ কথাটি মুছে ফেলুন এবং পরবর্তী ধাপে চলে যান।

৪। পরের ধাপে আপনাকে আপনার ব্লগ/ওয়েবসাইটের নাম ও টাইটেল বা শ্লোগান ঠিক করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল স্টেপ ৩

আপনার সাইটের ভাষা সিলেক্ট করুন। আপনি যদি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড বাংলা লেখায় চান তাহলে বাংলা সিলেক্ট করুন। তা নাহলে ইংলিশ রাখুন এবং পরের ধাপে চলে যান।

৫। সর্বশেষ ধাপে আপনাকে একটি থিম সিলেক্ট করতে হবে। থিম নির্বাচনটি একটু সময় নিয়ে করবেন। ওয়ার্ডপ্রেস এ হাজার হাজার ফ্রি থিম পাবেন। যেকোন একটি নির্বাচন করুন এবং আপনার সাইটের কন্টেন্টের সাথে মিল থাকে এমন একটি থিম নির্বাচন করা বুদ্ধিমানের কাজ।

ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল স্টেপ ৪

ইন্সটল ক্লিক করার পর ১-২ মিনিট সময় নিবে ইন্সটলেশন সম্পূর্ণ হতে। ইন্সটল হয়ে গেলে আপনি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড যাবার ইউআরএল দেখাবে। এই ড্যাশবোর্ড ই হবে আপনার সকল কাজের মুল জায়গা।

নোটঃ ৩ নং ধাপে আপনি যদি ‘wp’ কথাটি রাখেন তাহলে আপনার ড্যাশবোর্ড ইউআরএল হবে একরকম আর মুছে ফেললে হবে আরেকরকম।

  •  ‘wp’ কথাটি রাখলে https://www.ur site.com/wp/wp-admin/
  • ‘wp’ কথাটি না রাখলে https://www.ur site.com/wp-admin/

আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ডে লগ ইন করুন

আপনার ব্রাউজারে ড্যাশবোর্ড URL(https://www.ur site.com/wp-admin/) এ গিয়ে আইডি পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড

পদক্ষেপ ৪ঃ আপনার ওয়েব সাইট কাস্টমাইজ করুন


কাস্টমাইজ করার বেসিক কিছু ধাপ দেয়া হলোঃ

  • থিমঃ আপনার থিম ফাইনাল করুন। ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটলের সময় যে থিম সিলেক্ট করেছিলেন তা ভালো না লাগলে আরেকটি থিম সিলেক্ট করুন।
  • থিম সিলেক্টঃ  Appearance>Theme>Add new>search any theme>press install>Press Activate

ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজেশন কিভাবে

ওয়ার্ডপ্রেস কাস্টমাইজ বিস্তারিত থাকবে আমাদের পরবর্তী কোন আলোচনায়।

এখন জেনে নেয়া যাক কিভাবে এবং কোন কোন আবশ্যকীয় প্লাগইন ইন্সটল করতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস এর Plugin Install করবেন কিভাবে?

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকে Plugins>Add New>Search plugins(type any plugin name)>Click Install>Click Activate

প্লাগইন এক্টিভেট করার পর আপনার ড্যাশবোর্ড এ প্লাগইন এর আইকন পাবেন (বাম দিকে নিচে)

ওয়ার্ডপ্রেস প্লাগইন ইন্সটল কিভাবে

ওয়ার্ডপ্রেস এর কিছু জরুরী Plugin

# Jetpack WordPress Plugin

জেটপেক ওয়ার্ডপ্রেস এর ভিতরে প্রথমেই দেয়া থাকে। খুবই প্রয়োজনীয় একটি প্লাগইন। জেটপেক প্লাগইন ফ্রি ভার্শন এর কিছু সুবিধা অসুবিধা দেয়া হলোঃ

জেটপেক প্লাগইন এর সুবিধা

  • আপনার সাইট সর্বদা পর্যবেক্ষণ করবে। আপনার সাইট কখনো ডাউন হলেসোশ্যাল শেয়ার বাটন ওয়ারডপ্রেস (হোস্টিং এর কারণে) আপনাকে মেইল করবে।
  • সোশ্যাল শেয়ার আইকন/অপশন গুলো পাবেন বিনামুল্যে, কোন কোডিং করা লাগবেনা।
  • সোশ্যাল একাউন্টের মাধ্যমে ইউজার-রা লগইন বা কমেন্ট করতে পারবে।
  • সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে আপনার সাইট সাবমিট/ভেরিফিকেশন করতে পারবেন

জেটপেক প্লাগইন এর অসুবিধা

  • অনেক ভারী একটি প্লাগইন। অনেক বেশি জায়গা নেয় আপনার সাইটে।
  • অনেক বড় হওয়াতে আপনার সাইট লোড হতে সময় নিতে পারে।
# Yoast SEO Plugin

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন অনেক গুরুত্বপূর্ণ যদি আপনার সাইটে পর্যাপ্ত ভিজিটর চান। Website কি, কিভাবে কাজ করে তা যেমন জানতে হবে তেমনি, আপনার সাইটের কন্টেন্ট লেখার সময় যে জিনিস গুলো খেয়াল রাখতে হবে তা ইয়োস্ট এসইও দিয়ে চেক করে নিতে পারবেন।

ইয়োস্ট প্লাগিনের সুবিধা

  • কন্টেন্ট বা আর্টিকেল টাইটেল কত শব্দের দিবেন তা ইয়োস্ট সাজেস্ট করবে। লেখার নিচে সবুজ অংশ মানে আপনি পর্যাপ্ত শব্দ দিয়েছেন। লাল কালার হলে শব্দের পরিমান কমাতে হবে।ইয়োস্ট প্লাগইন- Yoast Plugin কাস্টমাইজেশন কিভাবে
  • মেটা ডেসক্রিপশন কত বড় হবে তা ঠিক করে নিতে পারবেন।
  • ফোকাস কিওয়ার্ড সেট করে দিতে পারবেনইয়োস্ট প্লাগইন- Yoast Plugin সেটাপ কিভাবে
  • ইয়োস্ট এসইও প্লাগইন দিয়ে আপনার আর্টিকেল SEO friendly কিনা চেক করতে পারবেন।
  • একদম উপরের টুলবার এ ইয়োস্ট প্লাগইন এর আইকন যদি সবুজ বৃত্ত দেখায় তারমানে আপনার পোস্ট টি সার্চ ইঞ্জিনে ভালো ইম্প্রেশন পাবে।
# Polylang Multilingual Plugin

এটি অত্যন্ত জরুরী প্লাগইন যদি আপনি আপনার সাইট একাধিক ভাষায় দেখাতে চান। ধরুন আপনার ওয়েব সাইট বাংলায়। কিন্তু আপনি ইংলিশেও কিছু পোস্ট করবেন বা ইংলিশ ভাষার ভিজিটর দের আপনার সাইটে আনবেন। সেই ক্ষেত্রে এই প্লাগিনটি জরুরী।

আগেই বলেছি, কোডিং না জানলে ও ওয়েব সাইট বানানো কোন বড় ব্যপার নয়। কারন আপনি যদি কোড করে আপনার সাইট হেডার এ ল্যাংগুয়েজ সেট করতে পারেন তাহলে এই প্লাগইন ব্যবহার না করলেও হবে। আর কোডিং না পারলে এই প্লাগিন আপনার লাগবেই। ভাষা-ল্যাংগুয়েজ প্লাগিন-ওয়ার্ডপ্রেস

আপনার ওয়েব সাইট একাধিক ভাষায় না হলেও এই প্লাগিন লাগবে। শুধু ইংরেজি বা বাংলা ভাষায় হলেও প্লাগিন সেট করে ভাষা ঠিক করতে হবে। নাহলে সার্চ ইঞ্জিন আপনার সাইট ইনডেক্স করবেনা।

সার্চ ইঞ্জিন আপনার ওয়েব সাইট এ এসে প্রথমেই হেডার এ ভাষার নির্দেশনা খুজবে। গুগল যখন দেখবে আপনার ওয়েব সাইট ইংলিশ ভাষায় বা একাধিক ভাষায় আর্টিকেল আছে তখন গুগলের ইনডেক্সিং সহজ হয়। ভাষায় সমস্যা হলে সার্চ ইঞ্জিন আপনার সাইট ইগনোর করবে যার ফলে আপনি র‍্যাংকিং হারাবেন।

 

# WP Smush Plugin

ওয়েব সাইট তৈরী হলে দিনে দিনে আপনার আর্টিকেল বা পোস্ট বাড়বে সেই ক্ষেত্রে ধীরে ধীরে আপনার ওয়েব সাইট ভারী হবে। আর্টিকেল বা পোষ্টে খুব কমন জিনিস হলো ছবি।

আপনার সাইটে যদি অনেক বেশি ছবি থাকে এবং তা যদি অপ্টিমাইজ না করেন তবে আপনার Web site স্লো হবে। স্লো Website কখনো কোন ভিজিটর দ্বিতীয়বার আসবেনা।

অপ্টিমাইজ ওয়ার্ডপ্রেস-স্মাশ

এই প্লাগইন ব্যবহার করলে আপনার ওয়েব সাইট এর ইমেজ বা ছবির সাইজ কমিয়ে আনবে প্রায় ৭০%।

ইমেজ অপ্টিমাইজ ওয়ার্ডপ্রেস

পদক্ষেপ ৫ঃ মেনুতে পেজ যোগ করুন


 মেনুতে পেজ বসানোর জন্যে আপনাকে আগে পেজ বানাতে হবে।

ওয়ার্ডপ্রেস এ কিভাবে পেজ বানাবেন?

Pages>Add New ক্লিক করুন। নিচের ছবির মত উইন্ডো পাবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস এ কিভাবে পেজ বানাবেন

নতুন পেইজ বানানোর সময় কয়েকটি ধাপ ফলো করুন-

  • পেইজের নাম বা টাইটেল দিন
  • ল্যাংগুয়েজ সেট করুন পেইজ এর।
  • আপনার কন্টেন্ট দিন পেইজ এ (বিস্তারিত লেখা)
  • প্রয়োজনীয় ছবি দিন বা ফর্ম ব্যবহার করুন (কন্টাক্ট পেজ এর জন্যে)
  • এসইও চেক করুন
  • পাবলিশ করুন

কিভাবে মেনুতে পেজ যোগ করবেন?

Appearance>Customize ক্লিক করুন

 

ওয়ার্ডপ্রেস এ কিভাবে মেনুতে পেজ বসাবেন

মেনু বাটন এ ক্লিক করলে আপনি মেনু এডিট এর অপশন পাবেন। New Menu বানিয়ে একটি নাম দিন যেমন Header Menu.

তারপর Header Menu থেকে Add Item ক্লিক করে আপনার পেইজ দেখিয়ে দিন।

ওয়ার্ডপ্রেস এ কিভাবে মেনুতে পেজ পোস্ট ক্যাটেগরি যোগ করা হয়

আপনি আপনার মেনুতে শুধু পেইজ ছাড়াও কোন নির্দিষ্ট পোস্ট, ক্যাটেগরি বা ট্যাগ ব্যবহার করতে পারবেন।

সর্বশেষঃ

অভিনন্দন – আপনি আপনার Website পাবলিশ করার জন্য প্রস্তুত!

ব্রাউজারে আপনার Web site ইউআরএল দিয়ে ভিজিট করুন।

নিয়মিত কন্টেন্ট বা আর্টিকেল দিন এবং ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়ান।

 

কোন উপদেশ বা অভিযোগ জানাতে ইমেইল করুন  admin@amarkotha-bd.com

Share This!

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।